৩য় বিশ্বযুদ্ধ ও ইমাম মাহদী (আঃ) এবং গাজওয়া-ই-হিন্দ।

প্রেসিডেন্ট এরদোগানের মৃত্যুর পর তুর্কীতে ধ্বংস এবং ৩য় বিশ্বযুদ্ধের সূচনা হবে…..ইসরায়েল ফিলিস্তিন এলাকায় তার অপারেশন বৃদ্ধি করে এবং এতে দাজ্জালের জন্য একটি দুর্গ নির্মাণ করে…..আমেরিকা সম্পূর্ণভাবে ইসরায়েলকে সমর্থন করে এবং তাদের বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে…..তারপর হঠাৎ করে আমেরিকা প্রকাশ্যে লাফ দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে আশে এবং ইসরায়েল ও অন্যান্য জোটের সাথে সাক্ষাৎ করে এবং রাশিয়ার দলের সাথে যুদ্ধ শুরু করে। এসব দেখার পর রাশিয়াও লাফ দেয় এবং তার মিত্ররা সমর্থন করে এবং এইভাবে ৩য় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়। এই যুদ্ধ বাড়তে থাকে। আমেরিকা, রাশিয়া ও তাদের মিত্রদের এই যুদ্ধের কারণে বৃহৎ পরিমাণ মুসলমানরা মরতে শুরু করে। কেউ তাদের জন্য কিছুই করেনি। বাদামী রঙের বিল্ডিংয়ের (দাজ্জালের ৩য় মন্দির) বিস্ফোরণের কারণে একটি আতঙ্কজনক ধূলার ঝড় শুরু হয়, ধূলার ঝড়ে ঢেকে যাবে মধ্যপ্রাচ্য, হাজার হাজার মোসলমানের মৃত্যু, সূর্যের আলো পৃথিবীতে পরতে পারে না…..পাকিস্তান ভারতের সকল এলাকা দখল করে এবং বাংলাদেশ, আফগানিস্তানও পাকিস্তানের একটা অংশ হয়…..এই যুদ্ধে মুসলিমরা হত্যা করবেনা কোন নারী, শিশু, বৃদ্ধলোক, নিরস্র মানুষ ও যারা শান্তি স্থাপন করতে চায়।

You may also like

২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসের একটি স্বপ্নে আমি দেখি আল্লাহ্ বলেছেন- “কাসীম, যতক্ষণ পর্যন্ত মুসলমানরা বিশ্বাস করবেনা যে, তোমার স্বপ্নগুলো সম্পূর্ণ সত্য এবং সবকিছু সঠিকভাবে ঘটতে যাচ্ছে, যেভাবে আমি তোমাকে স্বপ্নের মধ্যে বলেছি। ততক্ষণ [...]
এই স্বপ্নে আমি দেখেছি যে, ইমরান খান আমেরিকানদের সাথে সংলাপে রয়েছেন এবং তাদের সঙ্গে তার একটি কথোপকথন হচ্ছে। কথোপকথনের সময় কঠোর ভাষায় একটি বিনিময় হয় এবং ইমরান খান রাগান্বিত হন এবং তিনি আমেরিকানদের সঙ্গে একটি রাগান্বিত স্বরে কথা বলা শুরু করেন। [...]
৩য় বিশ্বযুদ্ধের শুরুতেই পাকিস্তানকে “তোরা বোরা” হিসেবে তৈরি করার চেষ্টা করা হবে। পাকিস্তান থেকে সকল প্রকারের শিরক এবং শির্কের সকল রূপগুলোকে ধ্বংস করা হবে তারপর আল্লাহ্ মুসলিমদেরকে ৩০০০ কালো জঙ্গি বিমান দ্বারা সাহায্য করবেন। এই দেখে সারা বিশ্ব [...]
মোহাম্মাদ কাসীম ইবনে আব্দুল কারীম। তিনি গত ২৮ বছর যাবৎ তাঁর রহমানী স্বপ্নগুলোর মাধ্যমে সর্বশেষ নবী মোহাম্মাদ (সঃ) এর সাথে ৩০০ বারেরও বেশি বার কথা বলেছেন। তার স্বপ্নগুলো সম্পর্কিত- কেয়ামতের আলামত, ৩য় বিশ্বযুদ্ধ, গাজওয়া ই হিন্দ, সমগ্র বিশ্বে [...]
তুর্কীর প্রেসিডেন্ট এরদোগান খুব বড় একটি জনসভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন। এবং তিনি তুর্কীর লোকজনকে বলছিলেন যে, আমরা আবার অটোমান সাম্রাজ্য তৈরি করব এবং এইসব ক্ষমতা যা আমি অর্জন করেছি, এসব এটার একটি অংশ। এবং এইসব ক্ষমতা পাওয়ার পর আমরা মুসলমানদের হারানো [...]
মোহাম্মাদ কাসীম বলেন, ২৫ মে, ২০১৮ সালের স্বপ্ন। এই স্বপ্নে আমি দেখি যে, আকাশে একটি সবুজ রঙের স্তর আছে যা প্রায়-স্বচ্ছ। এবং আমি এই স্তরের মাধ্যমে নীল আকাশ দেখতে পারি। সেখানে যাত্রীবাহী বিমান আকাশে উড়ন্ত আছে এবং তারপর আমি দেখি যে, একটি যাত্রীবাহী [...]
Page 2 of 6

1 thought on “৩য় বিশ্বযুদ্ধ ও ইমাম মাহদী (আঃ) এবং গাজওয়া-ই-হিন্দ।”

Leave a Reply